শেষ ম্যাচে লড়াই করে হার মেয়েদের

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কশেষ বলের রোমাঞ্চ নিয়ে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে হার মেনেছে নারী ক্রিকেট দল। আগের দুই ম্যাচে শেষ ওভারে জিতলেও রবিবার তারা জয়ের দেখা পায়নি। ফারজানা হকের অনবদ্য ৬৬ রানের সুবাদে বাংলাদেশ ৪ উইকেটে ১৫১ রান করেছিল। জবাবে ৪ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড। তবে শেষ ম্যাচ হারলেও ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ।

ডাবলিনের পেমব্রোক ক্রিকেট ক্লাবে ১৫২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা আইরিশদের শুরু থেকে চেপে ধরে বাংলাদেশ। ৩০ রানে দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল সালমা-রুমানাদের দল। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ৯৩ রানের জুটি গড়ে গ্যাবি লুইস ও অধিনায়ক লরা ড্যালনি লড়াইয়ে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন দলকে।  

নাহিদা আক্তারের সরাসরি থ্রোতে গ্যাবি লুইসের রান আউটে ভেঙে যায় এই জুটি। ঠিক ৫০ রান করা গ্যাবির ৩১ বলের ঝড়ো ইনিংসে সাতটি চার ও একটি ছক্কা। ৪৬ রান করে রান আউট হয়েছেন ড্যালনিও। তবে ইসোবেল জয়েসের অপরাজিত ২২ রান সান্ত্বনার জয় এনে দিয়েছে আয়ারল্যান্ডকে।

প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসেবে পাঁচ উইকেট শিকার করা জাহানারা আলম ভালো করতে পারেননি। চার ওভারে ৩৯ রান খরচ করে উইকেটশূন্য ছিলেন এই পেসার। দুই স্পিনার নাহিদা আক্তার ও পান্না ঘোষ একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে চার উইকেটে ১৫১ রান করেছে বাংলাদেশ। মেয়েদের টি-টোয়েন্টিতে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। আগের সর্বোচ্চ ছিল ১৪২ রান, গত ৬ জুন এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে।

রবিবার ইনিংসের প্রথম ওভারেই বাংলাদেশের ওপেনার শামিমা সুলতানা ঝড় বইয়ে তুলে নেন ১৪ রান। শামিমা ২৭ বলে ৫ চারে ৩০ রানের ইনিংস খেলে সিয়ারা ম্যাটক্যাফের বলে স্টাম্পিংয়ের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন।

এরপর দ্বিতীয় উইকেটে ফারজানা হককে সঙ্গে নিয়ে ৩০ রানের জুটি গড়ে রান আউট হয়ে যান আয়েশা রহমান। আয়েশার ব্যাট থেকে এসেছে ২৭ রান। বাংলাদেশ ইনিংসের বাকিটা জুড়ে ছিলেন ফারজানা। ৪৭ বলে ছয়টি চার ও দুটি ছক্কায় ৬৬ রানে অপরাজিত ফারজানার জন্যই দেড় শ’ পেরিয়েছে বাংলাদেশের ইনিংস। তবে তা জয় এনে দিতে পারেনি।

Print Friendly, PDF & Email