সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় বললেন গম্ভীর

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কসব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন ভারতের ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক গৌতম গম্ভীর। বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) থেকে অনুষ্ঠেয় দিল্লী ও অন্ধ্র প্রদেশের মধ্যকার রঞ্জি ট্রফির ম্যাচটি তার শেষ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ হতে চলেছে। ৩৭ বছর বয়সী গম্ভীর ভারতের হয়ে ৫৮ টেস্ট, ১৪৭ ওয়ানডে ও ৩৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে সব ফরম্যাট মিলিয়ে ১০ হাজারের বেশী রান সংগ্রহ করেছেন।

মঙ্গলবার (০৪ ডিসেম্বর) নিজের টুইটার একাউন্ট থেকে এক আবেগঘন পোস্টের মাধ্যমে অবসরের এই ঘোষণা দেন ১৫ বছর ভারতের হয়ে খেলা গম্ভীর। এছাড়া নিজের ফেসবুক একাউন্ট থেকেও এক ভিডিও বার্তা পোস্ট করেছেন তিনি।

টেস্টে গম্ভীরের রান ৪১৫৪, ওয়ানডেতে ৫২৩৮ আর টি-টোয়েন্টিতে তার সংগ্রহ ৯৩২ রান। টেস্টে তার গড় ৪১.৯৬, সেঞ্চুরি ৯টি। ওয়ানডেতে তার গড় ৩৯.৬৮, সেঞ্চুরি ১১টি। আর টি-টোয়েন্টিতে তার গড় ২৭.৪১, ফিফটি ৭টি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার সংগ্রহ ১৫ হাজার ৪১ রান আর লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ১০ হাজার ৭৭ রান।

২০০৩ সালে ঢাকায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে তার ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে। তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে উজ্জ্বল অধ্যায় হচ্ছে ২০১১ সালের বিশ্বকাপ জয়। সেবার বিশ্বকাপের ফাইনালে ১২২ বলে ৯৭ রানের ইনিংস খেলে ১৯৮৩ সালের পর ভারতকে ফের বিশ্বকাপ এনে দেন তিনি। 

২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের স্কোয়াডের সদস্য ছিলেন গম্ভীর। সেবারও ফাইনালে গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন তিনি। আর আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের নেতৃত্ব দিয়ে দু’টি শিরোপাও এনে দিয়েছিলেন একসময়ের দুর্দান্ত এই ওপেনার। তাছাড়া আইপিএলের আরেক ফ্র্যাঞ্চাইজি দিল্লী ডেয়ার ডেভিলসেরও নেতৃত্ব দিয়েছেন এই বাঁহাতি।

২০০৮-২০১১ সাল পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেট দলের অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিলেন গম্ভীর। ২০০৯ সালে টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষ স্থানে ছিলেন তিনি এবং সেবার আইসিসি’র বর্ষসেরা টেস্ট খেলোয়াড়ও নির্বাচিত হয়েছিলেন। সর্বশেষ ২০১৬ সালে রাজকোটে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে তাকে ভারতের জার্সি গায়ে খেলতে দেখা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email