সাকিব-আশরাফুলদেরও ছাড়িয়ে গেলেন মুশফিক

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কসিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে রেকর্ডের ঝাঁপি খুলে বসেছেন মুশফিকুর রহিম। ইনিংস ডিক্লেয়ার করার আগে আরও কয়েকটি রেকর্ডে আঁকিবুঁকি করলেন তিনি। উইকেটরক্ষক ও বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরির মতো রেকর্ড গড়ার পর এবার সাকিব আল হাসানের গড়া বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ টেস্ট ইনিংসের রেকর্ডও নিজের করে নিয়েছেন সাবেক এই অধিনায়ক।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনে আজ সোমবার (১২ নভেম্বর) ব্যাট হাতে রেকর্ডের বন্যা বইয়ে দিয়েছেন মুশফিক। তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট ডাবল সেঞ্চুরি। এই এক ইনিংস তাকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। 

বাংলাদেশের হয়ে এতদিন ২১৭ রান নিয়ে সর্বোচ্চ টেস্ট ইনিংসের মালিক ছিলেন নিয়মিত টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে ওই কীর্তি গড়েছিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। কিন্তু আজ সেই রেকর্ডকে ছাড়িয়ে ঠিক ২১৯* রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন মুশফিক।

এছাড়া ডাবল সেঞ্চুরি করে কুমার সাঙ্গাকারা, মহেন্দ্র সিং ধোনি, অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারদের মতো গ্রেটদের ছাড়িয়ে উইকেটরক্ষক হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরির একমাত্র মালিক এখন মুশফিক।

বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের টেস্টের এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বল মোকাবেলার রেকর্ড ছিল মোহাম্মদ আশরাফুলের দখলে। ২০১৩ সালের ৮ মার্চ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গল টেস্টে ১৯০ রানের ইনিংস খেলার পথে ৪১৭ বল মোকাবেলা করেন তিনি। এই রেকর্ডও ছাড়িয়ে গেছেন মুশফিক। অপরাজিত ২১৯ রানের ইনিংসটি খেলতে মোট ৪২১ বল মোকাবেলা করেছেন তিনি।

এছাড়া বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ১৪৫ রানের ইনিংস খেলার পথে ৫৩৫ মিনিট ক্রিজে কাটিয়ে এতদিন টেস্টের এক ইনিংসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ক্রিজে কাটানো বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান ছিলেন আমিনুল ইসলাম বুলবুল। সেই রেকর্ডও আজ ছাড়িয়ে গেছেন মুশফিক।

মুশফিক ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবলের দেখা পেয়েছিলেন ২০১৩ সালে গলে। স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছিলেন ২০০ রানের ইনিংস। তিনি ছাড়া সাদা পোষাকে দেশের হয়ে ডাবল মেরেছেন কেবল তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। 

তামিমের ২শ এসেছিলো ২০১৫ সালে, খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে (২০৬)। আর সাকিব আল হাসান ২শ করেছিলেন ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে। স্বাগতিকদের বিপক্ষে দলকে উপহার দিয়েছিলেন ২১৭ রানের নান্দনিক এক ইনিংস।   
 
এই ডাবলেই আরও একটি ইতিহাসের জন্ম দিলেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মুশফিক। সাদা পোষাকে হোম অব ক্রিকেটের এই ভেন্যুতে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানই এত রান সংগ্রহ করতে পারেননি। তিনিই প্রথম। হ্যামিল্টন মাসাকাদজাদের বিপক্ষে ব্যক্তিগত ১৬১ রান নিয়ে গতকালই তামিম ইকবালকে (১৫১ রান) টপকে শীর্ষস্থান দখল করেছিলেন মুমিনুল হক। যা একদিনের ব্যবধানেই টপকে গেলেন মুশফিক।
 
মুশফিকের অর্জন এখানেই শেষ নয়। এই সংগ্রহ তাকে নিয়ে গেল এই ভেন্যুতে সবচেয়ে বেশি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো শীর্ষ ৪ জনের তালিকায়। ২০১২ সালে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান শিব নারায়ণ চন্দরপল (অপরাজিত ২০৩)। এর দুই বছর পর একই সংগ্রহ পেয়েছিলেন লঙ্কান মাহেলা জয়াবর্ধনে। আর ২০১৫ সালে ২২৬ রানের ইনিংস নিয়ে এই মাঠে রান সংগ্রাহকের তালিকায় শীর্ষে আছেন পাকিস্তানের আজহার আলী।

Print Friendly, PDF & Email