‘স্টোকসের ঘটনায় তামিমের দোষ খুঁজে পাইনি’

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাই ঘটেছে। প্রথমে মাঠে বাটলার আউট হওয়ার পর টাইগারদের উদযাপন নিয়ে বিতর্ক। এরপর ম্যাচ শেষে হ্যান্ডশেক করার সময়ও তর্কে জড়ান বেন স্টোকস ও তামিম ইকবাল।

দ্বিতীয় ঘটনায় তামিমের সামনেই অবস্থান করছিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। সামনে থেকে দেখার পর পুনরায় ভিডিওতেও সে ঘটনা দেখেছেন অধিনায়ক। আর তাতে তামিম ইকবালের কোনো দোষ খুঁজে পাননি দেশ সেরা এ পেসার।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মাশরাফি বলেন, ‘ভিডিওটা আমি দেখেছি। আমি তামিমের কোনো দোষ খুঁজে পাইনি। আমি ওদেরও দোষ দিচ্ছি না। তবে তামিমের কোনো ভুলও খুঁজে পাইনি। আমরা খুব স্বাভাবিকভাবে হ্যান্ডশেক করতে গিয়েছিলাম। প্রথম ম্যাচে হারার পর ও দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের পরও সেভাবেই গিয়েছি। আমি কারো দোষ দিতে চাই না। তবে তামিমের কোনো দোষ দেখি না। আমি ওর সামনেই ছিলাম। ও কিছু করেছে বা বলেছে, সেটা আমি শুনিনি।’

আগের ম্যাচ শেষে জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে হাত মেলান তামিম। এ সময় তার হাত নিজের দিকে টেনে নেন বেয়ারস্টো। আর তা পেছন থেকে দেখে স্টোকস ভাবেন বেয়ারস্টোকে খোঁচা দিচ্ছেন তামিম। তখন তিনি তামিমের দিকে তেড়ে যান। তবে এ সময় সাকিব আল হাসান মাঝে এসে পরিস্থিতি সামাল দেন।

তবে ম্যাচের এমন সব ঘটনা উত্তেজনাবশত হয়েছে বলে মনে করেন মাশরাফি। এর আগেও বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারানোর পর এভাবেই উল্লাস করেছেন বলে জানান তিনি। কিন্তু বর্তমানে নিয়ম বদলে যাওয়ায় এবার জরিমানার কবলে পড়েছেন অধিনায়ক।

‘কারও দোষ থাকলে হিট অব দ্য মোমেন্ট করেছে। বলতে চাই না যে ওদের কারো দোষ আছে। আমাদের উদযাপনটা যেভাবে করেছিলাম আমরা, হয়তো এখন সেটা কোড অব কন্ডাক্টের ভেতর নাই। হয়তো ওই কারণে জরিমানা হয়েছে। মাঠে ওই রকম উত্তেজনাপূর্ণ সময়ে বিভিন্নভাবে অনেক উল্লাস করে। এমনকি এই ইংল্যান্ডের সঙ্গেও আমরা যখন অস্ট্রেলিয়ায় জিতেছি, তখন এভাবেই উল্লাস করেছি। তবে তখন এই ধরনের আইন ছিল না।’

উল্লেখ্য, আগামীকাল বুধবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। সব ভুলে এ ম্যাচে জয় পেতে মরিয়া উভয় দলই।

Print Friendly, PDF & Email