হাইভোল্টেজ ম্যাচে লিভারপুলকে হারালো চেলসি

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কচ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা করে নিতে জয় ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প হাতে ছিল না চেলসির। আগের দিন ওয়েস্ট ব্রমের কাছে টটেনহ্যামের হারে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছিলেন চেলসি বস অ্যান্তনিও কন্তে। এবার লিভারপুলকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখলো কন্তের শির্ষ্যরা। এ জয়ের ফলে ৩৬ ম্যাচে ৬৯ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে থাকা টটেনহ্যামের সাথে পয়েন্ট ব্যবধান দু’য়ে কমিয়ে আনলো চেলসি।

১১ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ওঠেও এদিন চেলসির বিপক্ষে সালাহ-ফিরমিনো-মানেদের নিয়ে একাদশ সাজান লিভারপুল বস ইয়ুর্গেন ক্লপ। যদিও ম্যাচের শুরু থেকেই স্টামফোর্ড ব্রিজে আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে চেলসি। ১৬ মিনিটে আলোন্সোর শট রুখে দেন লিভারপুল গোলকিপার ক্রাউস। ৩২ মিনিটেই চেলসিকে ম্যাচে এগিয়ে দেন আর্সেনাল থেকে লোনে খেলতে আসা অলিভিয়ার জিরুড।

ডান পাশ থেকে ভিক্টর মোসেসের বাড়ানো ক্রসে মাথা ছুঁয়ে বল জালে জড়ান এ ফ্রেঞ্চ স্ট্রাইকার। ২০১৫-১৬ মৌসুমের পর ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগে হেড থেকে সর্বোচ্চ ১৭টি গোল করলেন জিরুড। পেছনে ফেলেছেন ১৬ গোল করা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে। ২০১২ সালের পর প্রিমিয়ার লিগে তার হেডে গোলসংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো ঊনত্রিশে।

প্রথমার্ধের পাশাপাশি ম্যাচের পরের অর্ধেও নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি সদ্যই প্রিমিয়ার লিগের বর্ষসেরা প্লেয়ারের পুরস্কার জেতা মোহামেদ সালাহ। ক্লপের অধীনে প্রথমবারের মত টানা দুই ম্যাচ গোলহীন কাটালো লিভারপুল। অবশ্য এই হারে লিভারপুলের তেমন অসুবিধা হয়নি। লিগের তিন নম্বর পজিশন আগেই নিজেদের করে রেখেছে অলরেডরা।

Print Friendly, PDF & Email