৪৩তম বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াডে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক জর্জিয়ার বাতুমি শহরে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর হতে ৬ অক্টোবর ২০১৮ পর্যন্ত তারিখে অনুষ্ঠেয় ৪৩তম বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশ দাবা দলের অংশগ্রহণ উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার দুপুরে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের ক্রীড়া কক্ষে এক প্রেস-ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়।

এ প্রেস-ব্রিফিং এ মূল বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাব উদ্দিন শামীম। আরোও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহ সভাপতি এবং হেড অব ডেলিগেশন কে এম শহিদউল্যা ও ওপেন বিভাগের দাবা দলের অধিনায়ক গ্র্যান্ড মাস্টার ঈগরস রাউসিস।

এ সময় মহিলা দলের অধিনায়ক ন্যাশনাল ইনস্ট্রাকটর মাহমুদা হক চৌধুরী মলি, দাবা অলিম্পিয়াডের ম্যাচ আর্বিটার এবং বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী সদস্য জাকির আহমেদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এবারের দাবা অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণের জন্য ইতিমধ্যে রেকর্ড সংখ্যক ১৮২টি দেশ ও ৩টি সংগঠন (ব্রেইল, সাইলেন্স ও ফিজিক্যালি ডিসাবেল্ড) মহিলা বিভাগে রেকর্ড সংখ্যক ১৫১টি দেশ নাম এন্ট্রি করেছে।

হেড অফ ডেলিগেশন কে এম শহিদউল্যা, সহ সভাপতি, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন, কংগ্রেসে ডেলিগেট: সৈয়দ শাহাবুদ্দিন শামীম, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন, কংগ্রেসে অংশগ্রহণকারী : গাজী সাইফুল তারেক, সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন , ফেডারেশনের কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান পলাশ, যুগ্ম সম্পাদক, জাকির আহমেদ, কার্যনির্বাহী সদস্য, আলাউদ্দিন সাজু, কার্যনির্বাহী সদস্য, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন, ম্যাচ বিচারক : আন্তর্জাতিক বিচারক মোঃ হারুন অর রশিদ।

ওপেন বিভাগের দল : অধিনায়ক- গ্র্যান্ড মাস্টার ঈগর রাউসিস, খেলোয়াড়ঃ গ্র্যান্ডমাস্টার এনামুল হোসেন রাজিব (রেটিং-২৪৫২), গ্র্যান্ডমাস্টার মোল্লা আব্দুল্লাহ আল রাকিব (রেটিং-২৪৭২), গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমান (রেটিং-২৪৭৭), ফিদে মাস্টার খন্দকার আমিনুল ইসলাম (রেটিং-২২৭৩) ও ফিদে মাস্টার মোহাম্মদ ফাহাদ রহমান (রেটিং-২২৬৩)।

মহিলা দল : অধিনায়ক- ন্যাশনাল ইন্সট্রেটর মাহমুদা হক চৌধুরী মলি। খেলোয়াড় : মহিলা ফিদে মাস্টার শামীমা শারমিন শিরিন (রেটিং-১৯৭৪), আন্তর্জাতিক মহিলা মাস্টার শামীমা আক্তার লিজা (রেটিং-২১৫২), মহিলা ফিদে মাস্টার তনিমা পারভীন (রেটিং-২০২২), আন্তর্জাতিক মহিলা মাস্টার রানী হামিদ (রেটিং-১৯০৯) ও মহিলা ফিদে মাস্টার জাকিয়া সুলতানা (রেটিং-১৮৩৮)। উভয় বিভাগের খেলা ১১ রাউন্ড সুইস-লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে।

Print Friendly, PDF & Email