৬এপ্রিলকে জাতীয় ক্রীড়া দিবস করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

স্পোর্টস লাইফ, প্রতিবেদক ৬ এপ্রিলকে জাতীয় ক্রীড়া দিবস করার আহ্বান জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান জাহিদ আহসান রাসেল। আজ রবিবার জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর কাছে এ দাবি জানান তিনি।

এরমধ্য দিয়ে স্বাধীনতার ৪৫ পর অবশেষে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে উঠে এসেছে বছরের একটি বিশেষ দিনকে দেশের ক্রীড়া দিবস হিসেবে উদযাপন করার প্রস্তাব।

রবিবার (৪সেপ্টেম্বর) ওসমানী জাতীয় মিলনায়তনে বক্তব্য রাখার সময় জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘ক্রীড়াঙ্গন বিভিন্ন সময়ে দেশের মুখ উজ্জ্বল করে চলেছে তবে আমরা এখনও জাতীয় ক্রীড়া দিবস পালন করতে পারিনি। ক্রীড়া দিবসের জন্য একটি দিন নির্ধারণ করলে সারাদেশের ক্রীড়াঙ্গনকে একটি প্ল্যাটফর্মে আনতে পারবো। আমি ৬ এপ্রিলকে জাতীয় ক্রীড়া দিবস হিসেবে প্রস্তাব করছি।’

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে শোনেন।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘ কর্তৃক ৬ এপ্রিলকে ইন্টারন্যাশনাল ডে অব স্পোর্টস ডেভলপমেন্ট অ্যান্ড পিস হিসেবে ঘোষিত হয়েছে ২০১৫ সালে। এর ব্যাখ্যায় জাতিসংঘ বলেছে ক্রীড়ার মাধ্যমেই জাতিসংঘের শান্তি ও উন্নয়নের বাণী প্রচার করা সহজ। কারণ ক্রীড়ার আবেদন সার্বজনীন।

এর আগে অবশ্য ২৪ জুলাইকে জাতীয় ক্রীড়া দিবস হিসেবে পালন করতে অঘোষিতভাবে আলোচনা হয়েছিল। ১৯৭১ সালের ২৪ জুলাই পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগর স্টেডিয়ামে স্থানীয় কৃষ্ণনগর একাদশের বিপক্ষে দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের বাণী ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য প্রথম ম্যাচ খেলেছিল স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল।

ফুটবলের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে অবদান রাখার অনন্য নজির গড়েছিল স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল। তাই এই দিনটিকে ক্রীড়া দিবস হিসেবে পালন করার প্রস্তাব উঠেছিল।

Print Friendly, PDF & Email