৯৭৪টি শিপিং কন্টেইনার দিয়ে স্টেডিয়াম তৈরী! কাতারের নতুন চমক

স্পোর্টস লাইফডেস্ক : বিশ্বে এমন স্টেডিয়াম আগে দেখা যায়নি। কম খরচে, দ্রুততার সঙ্গে তৈরি ও পরিবহন যোগ্য এমন স্টেডিয়াম বৈশ্বিক আসরটিতেও প্রথম। ইতিহাস গড়া ‘স্টেডিয়াম ৯৭৪’ মূলত ৯৭৪টি কন্টেইনার দিয়ে গড়া। বিশ্বকাপ শেষে এটি ভেঙে ফেলা হবে। 

৯৭৪ নম্বরটি মূলত কাতারের আন্তর্জাতিক ডায়াল কোড। এই ডায়াল কোডের সঙ্গে মিল রেখেই ৯৭৪টি কন্টেইনার দিয়ে এই স্টেডিয়াম তৈরি করা হয়েছে। ৪০ হাজার দর্শক একসঙ্গে বসে এই স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে পারবে। বিশ্বের প্রথম এমন স্টেডিয়াম যেটি তৈরিই করা হয়েছে ভেঙে ফেলার জন্য।

ইতিহাস, সমুদ্রের সঙ্গে যুক্ত থাকা, ব্যবসা-বাণিজ্য, সর্বপরি কাতারিদের ঐতিহ্যকে শ্রদ্ধা জানাতে গড়া এই মাঠ। ৯৭৪টি শিপিং কন্টেইনারে নির্মিত হওয়ায় মাঠটির নামকরণও ওই নামে। কাতারের রাজধানী দোহা থেকে প্রায় ১০ কি.মি. পূর্বে অবস্থিত উপকূলীয় শহর রাস-আবু আবাউদে নির্মিত এই বিশেষ স্টেডিয়ামটি ভেঙে ফেলা হবে বিশ্বকাপের আসর শেষেই। সমুদ্রবন্দরের সন্নিকটে অবস্থিত স্টেডিয়ামটির নকশা করেছে ফেনউইক ইরিবারেন আর্কিটেক্ট।

বিশেষ এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে নির্মিত এই স্টেডিয়ামটি উদ্বোধন করা হয় ২০২১ সালের ২০ নভেম্বর। বিশ্বকাপের নকআউট পর্বের ম্যাচসহ এই স্টেডিয়ামে সব মিলিয়ে অনুষ্ঠিত হবে মোট ৭টি ম্যাচ।

বিশ্বে যা কিছুই তৈরি হোক না কেনো তার স্থায়িত্ব আরত টেকসই হওয়া নিয়েই আলোচনা থাকে সবসময়। অথচ বিশ্বকাপের মহাযজ্ঞ উপলক্ষ্যে নির্মিত এই স্টেডিয়াম ৯৭৪ তৈরির আগেই আলোচনায় আসে বিনাশের দিন তারিখ নিয়ে। মরুর বুকে রঙ বেরঙয়ের আলো ছড়িয়ে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে যে স্টেডিয়াম, তা যে ভেঙে ফেলা হবে বিশ্বকাপের পরই।

সুন্দর এবং আধুনিক সব সুবিধা সম্বলিত মাঠটিতে আসন্ন আসরে খেলবেন রোনালদো-মেসি-নেইমার-এমবাপেরা। গ্রুপ পর্বে পর্তুগাল-ঘানা, ফ্রান্স-ডেনমার্ক, ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ড, পোল্যান্ড-আর্জেন্টিনাসহ ছয়টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে এ স্টেডিয়ামে। 

Print Friendly, PDF & Email